Saturday , August 17 2019
Breaking News
Home / আইনের প্রশ্নসমূহ / ৬। স্বীকৃত ও স্বীকারোক্তির মধ্যে পার্থ্ক্য কি ? পুলিশ হেফাজতে প্রদত্ত স্বীকারোক্তি কখন প্রাসঙ্গিক তা বিশদভাবে আলোচনা করুন।

৬। স্বীকৃত ও স্বীকারোক্তির মধ্যে পার্থ্ক্য কি ? পুলিশ হেফাজতে প্রদত্ত স্বীকারোক্তি কখন প্রাসঙ্গিক তা বিশদভাবে আলোচনা করুন।

৬ নং প্রশ্নের উত্তর

স্বীকৃত ও স্বীকারোক্তির মধ্যে পার্থক্যসমূহ নিম্নে আলোকপাত করা হলোঃ

স্বীকৃতি

স্বীকারোক্তি

স্বীকৃতি: কোন ব্যক্তি আদালতে হাজির হয়ে কোন বিচার্য বা প্রাসঙ্গিক বিষয়ে মৌখিক বা লিখিতভাবে যে বিকৃতি প্রদান করে যা বিচারকের বিচাযকার্যে সহায়তা করে তাকে স্বীকৃতি বলে। স্বীকারোক্তি: কোন আসামী আদালতে হাজির হয়ে ভয়ভীতি প্রলোভন ইত্যাদি ছাড়া নিজের দোষ স্বীকারে করে যে বিবৃতি প্রদান করে তাকে স্বীকারোক্তি বলে।
স্বীকৃতি দেওয়ানী ও ফৌজাদারি উভয় মামলার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। স্বীকারোক্তি কেবলমাত্র ফৌজদারি মামলার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য।
স্বীকৃতি সর্বদা পক্ষে কাজ করে থাকে স্বীকারোক্তি সর্বদা বিরুদ্ধে কাজ করে থাকে।
স্বীকৃতি প্রদানকালে ভয়ভীতি, প্রলোভন কিংবা প্রতিশ্রুতির বিষয় থাকে না। স্বীকারোক্তি প্রদান কালে ভয়ভীতি, প্রলোভন ও প্রতিশ্রুতির বিষয় থাকে।
স্বীকৃতি সাক্ষ্য আইনের ১৭-২৩ ধারা, পিআরবি-২৮৩ বিধি। স্বীকারোক্তি সাক্ষ্য আইনের ২৪-৩০ ধারা, পিআরবি-৪৬৭ বিধি

পুলিশ হেফাজতে স্বীকারোক্তি যখন প্রাসঙ্গিক:

১। ১৮৭২ সালে প্রণীত সাক্ষ্য আইনের ২৬ ধারা অনুসারে পুলিশ হেফাজতে থাকা কোনো আসামির স্বীকারোক্তি লিপিবদ্ধ করার সময় যদি ম্যাজিস্ট্রেট উপস্থিত থাকে, তাহলে এ ধরণের স্বীকারোক্তি আদালতে প্রাসঙ্গিক বা গ্রহণযোগ্য।

সাক্ষ্য আইনের ২৬ ধারা

পিআরবি ২৮৩ বিধি

২। পুলিশ হেফাজতে থাকা আসামির স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে যতটা তথ্য বা আলামত পাওয়া যাবে ততটা তথ্য বা আলামত আদালতে গ্রহণযোগ্য বা প্রাসঙ্গিক।

সাক্ষ্য আইনের ২৭ ধারা

পিআরবি ২৯৭ বিধি

print

About masum

Check Also

প্রশ্ন-১৪। গ্রেফতার না করেও কোনো ব্যক্তির দেহ তল্লাশি করার বিধান আছে কি ?

১৪ নং প্রশ্নের উত্তর: উত্তর: নিম্নলিখিত ক্ষেত্রে গ্রেফতার না করেও দেহ তল্লাশি করা যায়ঃ ১। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *